/ ICON /

প্রতিভায় উজ্জ্বল তরুণ নির্মাতা সোহান

প্রতিভায় উজ্জ্বল তরুণ নির্মাতা সোহান
Hebiro Stuff on September 18, 2016 - 3:34 pm » CATEGORY: ICON

প্রতিভায় উজ্জ্বল তিনি, আলোতে আলোকিত তরুণ নির্মাতা সোহান !! পুরো নাম তালহা বিন পারভেজ সোহান। ২৮ বছর বয়সী এই নির্মাতা এর মধ্যেই বানিয়েছে আলোচিত বেশ কিছু টেলিফিল্ম, ডকুমেন্টারি। তবে পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন মিউজিক ভিডিও পরিচালনায়। ৪ বছরের স্বল্প ক্যারিয়ারে তার নির্মাণশৈলী নিয়ে গেছেন সম্মুখ কাতারে।

প্রথিতযশা সাংবাদিক ও লেখক পারভেজ বাবুল ও সমাজসেবিকা সাবিনা ইয়াসমিন চৌধুরীর জৈষ্ঠ্য পুত্র তিনি। তরুণ এই নির্মাতার জন্ম মানিকগঞ্জের বানিয়াজুরীতে ১৯৮৮ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর। সাংবাদিক বাবার পদাঙ্ক অনুসারে লেখালেখির অভ্যাসটা শিশু বয়স থেকেই ছিল।

কৈশোরে শিশু একাডেমিতে মঞ্চনাটক নির্দেশনা থেকে তার শুরু। ৪০+রচিত ও নির্দেশিত নাটক ছিল। সবগুলোই বাস্তব চরিত্র ও রঙ্গ নির্ভর। আছে মিশ্র কবিতার বই। লিখেছেন জনপ্রিয় শিল্পীদের জন্য অর্ধশতের বেশি গান। আমুদে মানুষ তাই সবকিছু নিয়েই আনন্দে থাকতে ভালোবাসেন।

২০১০ সালে কিছু বন্ধুর সমন্বয়ে তার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘ফেইনেন্ট ক্রিয়েশন’ গড়ে তুলেন নির্মাতা সোহান !! ‘বিবর্ণ স্বন্ধিণ’ নামে ডকুমেন্টারি তৈরি করেন। সাড়া ফেলে তখনকার ইভটিজিং ইস্যুতে নির্মিত কাজটি। কখনও সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করা হয়ে ওঠেনি তার, পরিবেশটাই তেমন ছিল না পরিবারের কারণে, নির্দেশ ছিল পড়াশোনা শেষ না করে কিছু করা যাবে না। তাই গ্র্যাজুয়েশন শেষের পর ২০১২ সালের শেষে টেলিফিল্ম ‘ব্রেইন ওয়াশ’ ও স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ড্রিম শাটল’ নির্মাণ।

এরপর কিছু আনকোরা ছেলে-মেয়েদের নিয়ে মিউজিক ভিডিও তৈরির যাত্রা শুরু। প্রতিকূল অবস্থা থেকে আস্তে আস্তে তৈরি করেন বেশ কয়েকটি দৃষ্টিনন্দন মিউজিক ভিডিও। খেয়ালি মানুষ তাই কাজের চাপটাকে একপেশে করে ফেলার পরও অসংখ্য গুণগ্রাহীর সৌজন্যে একের পর এক কাজ আসতে থাকে নিরবচ্ছিন্নভাবে। জনপ্রিয় হয়ে যায় কয়েকটা। তার প্রথম নির্মাণ শাহরিদ বেলাল ও নির্ঝরের গাওয়া ‘বৃষ্টি থেমে গেলে’ গানটি দর্শকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে।

এরপর থেকে একাধারে তৈরি করেছেন প্রায় অর্ধশতাধিক মিউজিক ভিডিও। এর মধ্যে মীর রিয়াজের ‘মায়াবী’, ‘রাজকুমারি’, হাবিব ওয়াহিদের ‘এক জনে’, বালামের ‘চোখের আড়ালে’, শহিদের ‘আড়াল ভালবাসা’, তাসনুভের হারানো সীমানা, শায়লা রহমানের আজ দুজনে, শাওন গানওয়ালার ‘মন জানে’, শাহনাজ সুমি’র ‘মনের মাঝে’, টি আর রোমান্সের ‘আশকারা’, সেনার নিস্পলক, মাসুদ অপুর ‘তোর লাইগারে’, সানের ঐশ্বর্য, সামিউল সজীবের বেসামাল। নতুনদের প্রমোট করতে আনন্দ পান। গন্ডির বাইরে কাজ করতেও পান আনন্দ।

তরুণ নির্মাতা  সোহান জানান, বিনোদন সেক্টরের মতোই মিউজিক ভিডিওতেও কম বাজেটে কাজ করতে নির্মাতাদের বেহাল অবস্থা, তারপরও কালার, ফ্রেমিং, সম্পাদনা সব ক্ষেত্রে ঘটেছে বিপ্লব গত কয়েক বছরে। পরিমার্জিত স্বচ্ছ উপস্থাপন বিনোদনে যোগ করেছে ভিন্নমাত্রা। নতুন আর পুরনোর সংমিশ্রণে তা প্রশংসার যোগ্য বৈকি। অনেক ভালো মেকারদের কাছ থেকে আমরা যেমন পাচ্ছি বিশ্বনন্দিত কাজ, তেমনি অনেক নতুন মুখের সুযোগ হচ্ছে মেধা প্রকাশের।

তিনি আরো বলেন, গৎবাধা একপেশে এজেন্সি নির্ভর টেলিফিল্ম বা বিজ্ঞাপন বা ছকবাঁধা সস্তা টিভি নাটকে আগ্রহ কম, তবে ভালগল্পের প্রতি বরাবরি তিনি। ফিল্ম বানানোর স্বপ্ন নিয়েই যেহেতু পদার্পন, তাই সেটার দিকেই মনোযোগটা আপাতত। নিজের কাজকে আপডেট করে অনেক দূর নিয়ে যাওয়াটাই এখন মূল লক্ষ্য এই নির্দেশকের।

 

175 views

0 POST COMMENT

Send Us A Message Here

Your email address will not be published. Required fields are marked *

thirteen + fifteen =